Unlimited Powerpoint templates, graphics, videos & courses! Unlimited asset downloads! From $16.50/m
Advertisement
  1. Business
  2. Web Design
Business

২০১৭ সালে সেরা ফলাফলের জন্য ১০ টি ওয়েবসাইট পুনর্নির্মাণ টিপস

by
Difficulty:IntermediateLength:LongLanguages:
This post is part of a series called How to Redesign Your Website Effectively (Ultimate Guide).
How to Apply a Website Redesign Checklist in 10 Easy Steps

Bengali (বাংলা) translation by Shakila Humaira (you can also view the original English article)

ক্ষুদ্র ব্যবসায়ের জন্য ওয়েবসাইট তৈরি করা সহজ ব্যাপার নয়—এমনকি যদিও আপনার ওয়েবসাইটটি খুব ছোট ও সাধারণ হোক না কেন। মাঝে মধ্যে আপনার ডিজাইনটি আপডেট করা প্রয়োজন হতে পারে, যাতে করে এটা সুন্দর দেখায় এবং আপনার ব্যবসার প্রসার ঘটাতে সাহায্য করে।

ছোট ব্যবসার ওয়েবসাইট পুনরায় ডিজাইন করার জন্য আমরা একটি টিউটোরিয়াল সিরিজ তৈরি করেছি, নিচে আমরা সেগুলো উপস্থাপন করছিঃ

পুনরায় ডিজাইন করার পরিকল্পনার সময়, উপরের ধাপগুলো অনুসরণ করাই শুধুমাত্র যথেষ্ট নয়। আপনাকে একইসাথে আপনার ওয়েবসাইটের কোন কোন ফিচার ও কার্যকরীতা হালনাগাদ করতে হবে, সে সম্পর্কেও পরিষ্কারভাবে জানা থাকতে হবে। ওয়েবসাইটের ফিচার সম্পর্কে একটা কথা সুবিদিত, যে এটা আপনার বিক্রি বাড়িয়ে দিতে পারে বা কমিয়েও দিতে পারে, এবং আপনার ব্যবসার প্রসারের ক্ষেত্রেও একই কথা খাটে।

Are you ready to redesign your website with the best tips and techniques
আপনি আপনার ওয়েবসাইট সেরা টিপস এবং টেকনিক ব্যবহার করে পুনরায় ডিজাইন করতে প্রস্তুত আছেন কি? (গ্রাফিক সোর্স)

এই নির্দেশিকাটিতে আপনি আবশ্যক ফিচার সমুহের একটি তালিকা পাবেন, যেটা আপনাকে ২০১৭ সালে কাংখিত ফলাফল পাবার জন্য ওয়েবসাইট পুনরায় ডিজাইন করতে সহায়তা করবে। চলুন, এবার এই অসাধারণ ওয়েবসাইট রি-ডিজাইন টিপসগুলোর আরও গভীরে প্রবেশ করি।

ব্যবসার প্রসার বাড়াতে সেরা ওয়েবসাইট পুনর্নির্মাণ টিপস (২০১৭ সালের জন্য)।

যদি আপনি এ ব্যপারে নিশ্চিত হতে চান যে, আপনার টার্গেট করা দর্শকরা সহজেই আপনার ওয়েবসাইট খুঁজে পাবে এবং নিয়মিত গ্রাহকে পরিণত হবে নিচের বিষয়গুলো গুরুত্বপূর্ণ:

১। "প্রথমে মোবাইল" এটা মনে রাখুন

এই সিরিজের প্রথম টিউটোরিয়ালটিতে যেমন বলা হয়েছে, ওয়েবসাইট নকশা করার সময় মোবাইল ব্যবহারকারীদের কথা মাথায় রেখে নকশা করতে হবে। এটা দুটি কারনে উল্লেখযোগ্য: ব্যবহারযোগ্যতা এবং অনুসন্ধান।

ওয়েব মনিটরিং প্রতিষ্ঠান, StatCounter এর মতে, ২০১৬ সালে মোবাইল ব্রাউজিং, ডেস্কটপ ব্রাউজিং এর জায়গা দখল করেছে। এর মানে হচ্ছে, এখন আপনার দর্শকরা ডেস্কটপ/ল্যাপটপ ব্যবহারকারীদের তুলনায় মোবাইল ব্যবহারকারী হওয়ার সম্ভাবনাই বেশী। যদি আপনার সাইটটি মোবাইল-বান্ধব না হয়, তবে আপনি সম্ভবত অনেক ক্রেতা হারাবেন।

গুগল ইতিমধ্যেই "মোবাইল-ফার্স্ট ইন্ডেক্সিং" প্রয়োগ করতে শুরু করেছে, অর্থাৎ আপনার সাইটটি কতটা মোবাইল-বান্ধব তা শীঘ্রই সার্চ ফলাফলে দেখা যাওয়ার কারণ হয়ে দাঁড়াবে। এর মানে হচ্ছে, আপনার সাইট মোবাইল বান্ধব না হলে প্রতিযোগী সাইটের উপস্থিতি কিছু কিছু অনুসন্ধান ফলাফলে আপনার চেয়েও বেশি হতে পারে।

আপনার ডিজাইন তৈরি হওয়ার পর, আপনি এটি গুগলের মোবাইল-বান্ধব টেস্টে মোবাইল ডিভাইসে কতটা কাজ করে তা দেখার জন্য পরীক্ষা করতে পারেন। যদি আপনার ওয়েবসাইট পরীক্ষায় পাস না করে, তবে আরও ভালো ফলাফল পেতে কি কি পরিবর্তন করতে হবে, তা তালিকা আকারে দেখানো হলো।

২। কন্টেন্ট বাড়ানোর পরিকল্পনা করুন

আরেকটি সহায়ক ওয়েবসাইট ডিজাইন টিপস হচ্ছে, বিষয়বস্তু বাড়ানোর পরিকল্পনা করা। এমনকি যদিও আপনি মনে করে থাকেন যে, স্ট্যাটিক পাঁচ পাতার ওয়েবসাইটটি আপনার বর্তমান চাহিদার জন্য যথেষ্ট, কিন্তু আপনার নতুন ডিজাইনটি এমন হওয়া উচিত, যাতে বর্ধিত কনটেন্টও অন্তর্ভুক্ত করতে পারেন। মানে হচ্ছে এমনভাবে ডিজাইন করতে হবে, যাতে পরবর্তী দুই বছরের মধ্যে আপনি যদি একটি ব্লগ খুলেন অথবা পন্য সামগ্রীর পেইজ বাড়াতে চান, তাহলে যাতে খুব সহজেই সমন্বয় করে নিতে পারেন।

যদি আপনি রি-ডিজাইনের জন্য টেম্পলেট নিয়ে কাজ করেন, এর মানে হচ্ছে এমন একটি সাইট টেম্পলেট নিয়ে কাজ করা যেটা ওয়ার্ডপ্রেসের সঙ্গে কাজ করে অথবা, যদি আপনি একটি ইকমার্স সাইট চালান, আপনি এমন একটি ইকমার্স টেম্পলেট ব্যবহার করতে পারেন যেটা আপনার পছন্দের প্লাটফর্মে কাজ করবে।

সেরা ওয়ার্ডপ্রেস থিমগুলো ব্রাউজ করে দেখতে পারেন:

৩। নিরবচ্ছিন্ন ব্যবহারোভিজ্ঞতা লাভ করুন

যখন আপনি আপনার ওয়েবসাইটটি পুনর্নির্মাণ করবেন, তখন সহজেই প্রযুক্তিগত বিষয়সমূহের মধ্যে হারিয়ে যেতে পারেন, যেমন কোন কন্টেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম আপনি ব্যবহার করবেন, কোন বৈশিষ্ট্যগুলো আপনার লাগবে, এবং কিভাবে অন্যান্য মার্কেটিং চ্যানেলগুলোর সাথে আপনার সাইটটিকে মিশ্রিত করবেন। কিন্তু আপনি হয়তোবা ভুলে যেতে পারেন যে, প্রথমত কাদের জন্য এই সাইটটি পুনর্নির্মাণ করা হচ্ছেঃ আপনার সম্ভাব্য গ্রাহকদের জন্য।

এই জায়গায়ই  UX (ব্যবহারকারীর অভিজ্ঞতা অনুযায়ী) নকশা তৈরির কথা আসে। UX ডিজাইনে ব্যবহারকারীদের অভিজ্ঞতাকেই সবার আগে অগ্রাধিকার দেয়া হয়। যেসব কারণে একজন ব্যবহারকারী আপনার কোম্পানির ওয়েবসাইট ব্যবহার করবে, তাঁর মধ্যে বিশ্বাসযোগ্যতা, সহজেই ব্যবহারযোগ্যতা, এবং যেকোনো ইতিবাচক অনুভূতিও অন্তর্ভুক্ত আছে। এই পদ্ধতি সম্বন্ধে আরও জানতে নিচের সহায়ক নির্দেশিকাটি পড়তে পারেন:

যদিও UX এর উপর মনোযোগ দিলে আপনি এমন কোন ডিজাইন করতে পারবেন, যেটা আপনার গ্রাহকেদের অভ্যাস এবং প্রয়োজন পূর্ণ করতে পারবে, কিন্তু এটা আপনার পুনর্নির্মাণকে সফল করার জন্য যথেষ্ট নয়। এছাড়াও আপনাকে এটা সৌন্দর্য, কার্যকারিতা এবং ব্যবসায়িক ফলাফলের সঙ্গে মিলিয়ে দেখতে হবে।

৪। স্প্লিট টেস্টিং সহজ করে তুলুন

স্প্লিট টেস্টিংয়ের ফলে আপনি ওয়েবসাইট পুনর্নির্মাণের ফলাফল ক্রমান্বয়ে উন্নত করতে পারবেন। স্প্লিট টেস্টিং হচ্ছে মূলত একটি ওয়েবসাইটকে নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা, যাতে এমন কিছু পরিবর্তন করা সম্ভব হয় যা আপনার ওয়েবসাইটের প্রচার, বিক্রয় অথবা অন্যান্য মাপকাঠিকে উন্নত করবে। যদি এর আগে কখনই আপনার সাইটে স্প্লিট টেস্ট না করে থাকেন, তাহলে নতুন ডিজাইনটিই হতে পারে এটা শুরু করার জন্য সেরা সুযোগ।

বিশেষ করে ই-কমার্স ব্যবসায়ের জন্য স্প্লিট টেস্ট করা বেশ কঠিন। বিক্রয়ের জন্য ব্যবহৃত ওয়েবসাইট বা যেগুলোতে কোন ধরণের কল-টু-অ্যাকশন আছে, সেগুলোও স্প্লিট টেস্টিং থেকে উপকৃত হতে পারে।

শুরুতে  আপনি OptimizelyUnbounce, এবং Visual Website Optimizer এর মত টুলসমুহ ব্যবহার করে দেখতে পারেন।

৫। শক্তিশালী ভিজুয়াল উপাদান এবং গ্রাফিকস ব্যবহার করুন

ওয়েবসাইট পুনর্নির্মাণ প্রক্রিয়াটি ওয়েবসাইটের বিভিন্ন উপাদান যেমন, লোগো, আইকন, এবং ব্যাকগ্রাউন্ড গ্রাফিক্স ইত্যাদি ডিজাইন করার মধ্যেই সীমাবদ্ধ নয় বরং এর চেয়েও বেশী কিছু। এই প্রক্রিয়াটির মাধ্যমে আপনার ওয়েবসাইটকে শক্তিশালী দর্শনযোগ্য উপাদানে উপস্থাপিত করতে হবে। এগুলো হতে পারে, পন্যের সুন্দর সুন্দর ছবি, ভিডিও এবং অন্যান্য ভিজুয়াল কনটেন্ট যেমন ইনফগ্রাফিক এবং মেমে।

কারণ মানুষ সাধারণত শক্তিশালী ভিজুয়াল উপাদানের ক্ষেত্রেই প্রতিক্রিয়া দেখিয়ে থাকে। নেইলসেন নরম্যান গ্রুপের আই-ট্র্যাকিং স্টাডি থেকে দেখা গেছে যে, কিছু ইমেজ অন্যগুলোর তুলনায় বেশী দৃষ্টি আকর্ষণ করে থাকে। উদাহরণস্বরূপ, আপনার গ্রাহক এবং কর্মচারীদের আসল ছবি ও লেনদেনের পরিবেশের ছবি, গ্রাহকদেরকে সাধারন স্টক ছবির তুলনায় বেশি আকৃষ্ট করবে।

সাধারণ ছবির তুলনায় বিস্তারিত ছবিই বেশী আকর্ষণ করে থাকে। নীচের উদাহরনে দেখা যাচ্ছে, আমাজনে জেনেরিক থাম্বনেইলের তুলনায় বিভিন্ন তৈজসপত্রের বিস্তারিত ছবি দেখতে দর্শকরা বেশী সময় কাটিয়ে থাকে।

Photo web content eye tracking study
ছবির ওয়েব কনটেন্ট আই-ট্র্যাকিং সমীক্ষা।

দৃশ্যমান উপাদানসমূহ আপনার সাইটে তুলনামূলক বেশী ভিজিটর নিয়ে আসবে। বাযসুমো, একটি কোম্পানি যেটা কন্টেন্ট রিসার্চ টুলের সেবা দিয়ে থাকে, পরীক্ষা করে দেখেছে যে, যেসব আর্টিকেলে ৭৫ থেকে ১০০ শব্দ পর পর একটি করে ইমেজ ব্যবহার করা হয় সেগুলো কম ইমেজ আছে এমন রচনার চেয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় দুইগুন বেশী শেয়ার করা হয়ে থাকে। এমনকি, আপনি যদি আপনার ইমেজটি সোশ্যাল মিডিয়ার জন্য ভিন্নভাবে উপস্থাপন করে থাকেন, তবে এটা আপনার অনুসারীদেরকে বিপুলভাবে সংযুক্ত করবে।

৬। নিবেদিত ল্যান্ডিং পেইজ সেটআপ করা

ল্যান্ডিং পেইজ হচ্ছে আপনার ওয়েবসাইটের এমন কিছু পেইজ যেটা শুধুমাত্র একটি অফার এবং কল-টু-অ্যাকশনের জন্যই ব্যবহার করা হয়ে থাকে। কারণ ল্যান্ডিং পেইজগুলো খুব সুনির্দিষ্ট, এগুলো বিভিন্ন অফার, বিপনন বার্তা এমনকি ডিজাইন পরীক্ষা নিরীক্ষা করার জন্যও খুব কার্যকর উপায়।

যখন আপনি এই ধরনের পরীক্ষা নিরীক্ষা চালাবেন, তখন আপনাকে  আপনার হোমপেইজ বা সম্পূর্ণ ওয়েবসাইটে নাটকীয় পরিবর্তন আনতে হবে না, যেহেতু আপনি শুধুমাত্র কিছু আলাদা আলাদা পেইজে এই পরীক্ষানিরীক্ষা চালাতে পারছেন।

কি ধরনের শিল্প প্রতিষ্ঠান তার উপর নির্ভর করে, একটি নিবেদিত আলাদা ল্যান্ডিং পেইজের ২.৬ শতাংশ থেকে ৬ শতাংশ পর্যন্ত বিনিময় হার থাকতে পারে, একটি জনপ্রিয় ল্যাণ্ডিং পেইজ প্লাটফর্ম আনবাউন্সের একটি রিপোর্ট অনুসারে এ তথ্য প্রকাশিত। উচ্চ-ক্ষমতাসম্পন্ন ল্যান্ডিং পেইজ কিভাবে তৈরি করতে হবে এবং এগুলো কিভাবে আপনার বিক্রয় বৃদ্ধি করতে পারে, সে সম্পর্কে জানতে নিচের রিসোর্সগুলো চেক করুন:

৭। সোশ্যাল মিডিয়ায় আপনার উপস্থিতি সংহত করুন

এই সিরিজের পূর্বের নির্দেশিকায় আমরা যেমন বলেছি, আপনার ওয়েবসাইটটিকে সোশ্যাল মিডিয়ার জন্য উপযোগী করে তোলা নতুন কোনও ডিজাইন উপস্থাপন করার আগে অবশ্যকরণীয় ধাপগুলোর মধ্যে অন্যতম। কারণ, আপনার ওয়েবসাইটের প্রায় এক তৃতীয়াংশ রেফারেল ট্রাফিক সাধারণত সোশ্যাল মিডিয়া সাইটগুলো থেকে আসে।

এখানে কিছু লক্ষণ আছে যা আপনাকে আপনার পুনর্নির্মিত ওয়েবসাইটটি সোশাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টগুলির সাথে সম্পূর্ণরূপে মানানসই হয়েছে কিনা তা নির্ধারণে সহায়তা করতে পারে:

  • সঠিক সোশ্যাল স্নিপেটস। আপনার পেইজগুলো যখন সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করবেন সেগুলো দেখতে অবশ্যই ভালো হতে হবে। মানে হচ্ছে, যখন আপনি আপনার সাইট থেকে কোনও লিঙ্ক শেয়ার করবেন সেগুলোতে যাতে সঠিক থাম্বনেইল, ইমেজ, হেডলাইন এবং বিবরণ দেখা যায়।
  • ব্রান্ডিয়ের ক্ষেত্রে উপযুক্ততা। যখন মানুষ আপনার পুনর্নির্মিত ওয়েবসাইটটিকে সোশ্যাল মিডিয়া থেকে ভিজিট করবে এবং এর বিপরীতটি করবে, তখন তাঁরা যেন কোনও ব্রাণ্ডিং অথবা ভিজুয়ালের পরিবর্তনের কারনে আশ্চর্য না হয়। আপনার রঙ, ইমেজ, লোগো এবং অন্যান্য উপাদান যাতে আপনার নিজস্ব সাইট এবং সোশ্যাল মিডিয়া আকাউণ্টসমূহে ধারাবাহিকতা বজায় রাখে, তা নিশ্চিত করুন।
  • বিশেষ সোশ্যাল মিডিয়া লিঙ্কসমুহ। আপনার ভিজিটররা যাতে খুব সহজেই আপনার ওয়েবসাইট থেকে ওয়েবসাইটের সোশ্যাল মিডিয়া পেইজগুলোতে যেতে পারে। এর ফলে, তাঁদেরকে আপনার ব্যবসার সাথে সম্পর্কিত সোশ্যাল মিডিয়ার পেইজটিতে সংযুক্ত হতে তা খুঁজে বের করতে হবে না। আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায় পুনর্নির্মাণ প্রক্রিয়াটি তুলে ধরতে হবে না, কিন্তু অন্ততঃ আপনার যেকোনও পেইজ থেকে এগুলোতে যাতে সহজেই যাওয়া যায়, সেটা নিশ্চিত করতে হবে। সাইটের ফুটার, হেডার, অথবা সাইডবারের একটি কোণ এক্ষেত্রে কাজে লাগাতে পারেন।
  • দক্ষ কার্যধারা। আপনি যদি কোনও ব্লগ চালাতে চান, তবে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে আপনার সাম্প্রতিকতম ব্লগ পোস্টগুলি শেয়ার করার একটি সহজ ও স্বয়ংক্রিয় উপায় থাকতে হবে। এই প্রক্রিয়াটি সহজ করতে আপনি সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবস্থাপনা টু্লসমূহ ব্যবহার করতে পারেন।

৮। স্বতন্ত্রকরণের দিকে মনোযোগ দিন

পুনর্নির্মাণ করার সচরাচর পদ্ধতি হলো, সব ব্যবহারকারীর কাছে একই রকম ডিজাইন বা নকশা পরিবেশন করা। কিন্তু এর ফলে আপনি স্বতন্ত্রীকরণ ও বিভিন্ন ভাগে বিভক্ত করার সুবিধা থেকে বঞ্চিত হতে পারেন।

প্রথমত, স্বতন্ত্রীকরণের ফলে একজন গ্রাহক ঠিক যেমনটি চায়, তেমনি পায়। ইনফোসিসের একটি সার্ভে-তে পাওয়া গেছে যে, শতকরা ৭৪ শতাংশ গ্রাহক তাদের চাহিদামাফিক অভিজ্ঞতা না পেলে হতাশাবোধ করেন। সেইসাথে, অর্ধেকের বেশী মানুষ মনে করে যে স্বতন্ত্রীকরণ তাঁদের পণ্য কেনার সিদ্ধান্তের উপর প্রভাব বিস্তার করে।

এমনকি, স্বতন্ত্রীকরণের ফলে, আপনার ব্যবসার প্রসার বাড়তে পারে। একটি রিসার্চ ফার্ম গার্টনারের প্রতিবেদন অনুযায়ী, স্বতন্ত্রকরণের ফলে ২০২০ সালের মধ্যে একটি ব্যবসার লভ্যাংশ ১৫ শতাংশ পর্যন্ত বৃদ্ধি পেতে পারে।

ওয়েবসাইট স্বতন্ত্রভাবে পরিবেশন করার মানে এই নয় যে, আপনি প্রত্যেক ব্যবহারকারীকে আলাদা আলাদা অভিজ্ঞতা দিবেন।

নিচের উদাহরণে, ট্রাঙ্ক ক্লাবের মহিলা ও পুরুষদের জন্য আলাদা আলাদা গ্রাহক সুবিধা আছে। আপনি একটি পাথ সিলেক্ট করার পর, ইমেজ, বিপণন বার্তা, এবং অফার যা কিছুই আপনি পাবেন, সবই আপনার পছন্দ করা লিঙ্গের জন্য নির্ধারিত।

Trunk Club segmentation for women and men
ট্রাঙ্ক ক্লাবে মহিলা ও পুরুষদের জন্য আলাদা আলাদা স্টাইল

আপনার স্বতন্ত্রীকরণ ধারনাটি খুব জটিল, উচ্চমানের কারিগরি অথবা খুব ব্যয়বহুল না হওয়াই বাঞ্ছনীয়। আপনি প্রত্যেক রেফারেল সোর্সের জন্য, প্রত্যেক বড় বড় লোকেশনের জন্য অথবা নির্দিষ্ট এলাকার জন্য আলাদা আলাদা ল্যান্ডিং পেইজ তৈরি করার মাধ্যমে শুরু করতে পারেন।

৯। পুনর্নির্মাণ প্রক্রিয়ায় এসইওর কথা মাথায় রাখুন।

নতুন ডিজাইনের জন্য এসইও কৌশল কি হবে, তা মূলত নির্ভর করবে আপনার সম্ভাব্য ক্রেতারা আপনাকে কতটা সহজে বিভিন্ন সার্চ ইঞ্জিন, যেমন গুগল অথবা বিং ব্যবহার করে খুঁজে পায় তার উপর। এটা হচ্ছে আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ টিপস যে বিষয়ে অবশ্যই মনোযোগ দিতে হবে। এসইও বিশেষতঃ ই-কমার্স সাইটের জন্য গুরুত্বপূর্ণ, কারণ সফটওয়্যার রিভিউ কোম্পানি Yotpo অনুসারে সার্চ হচ্ছে তাঁদের এক নম্বর রেফারেল ট্রাফিক সোর্স।

Traffic by source

কিন্তু ২০১৭ সালের এসইও কৌশল আপনার সর্বশেষ ওয়েবসাইট ডিজাইনের সময় যেসব কৌশল কার্যকর ছিলো, সেগুলোর মত না-ও হতে পারে। যদি আপনি হালনাগাদ ও নতুন এসইও কৌশল প্রয়োগ করতে চান, তাহলে আপনাকে নিচের বিষয়গুলোর উপর কাজ করতে হবে:

মোবাইল সার্চ ইনডেক্সিং

আমরা এই নির্দেশিকার শুরুতেই "মোবাইল-ফার্স্ট ইনডেক্সিং" এর কথা বলেছি, কিন্তু এটা এখানেও উল্লেখ করা প্রয়োজন। যেহেতু এটা এসইও কৌশলের একটি অংশ।

আপনার নতুন ডিজাইনটি যাতে গুগল সঠিকভাবে ইনডেক্স করে তা নিশ্চিত করতে, রেসপন্সিভ ডিজাইন তৈরি করতে চেষ্টা করুন। এই ধরনের ডিজাইনগুলো যেই ডিভাইস থেকে দেখা হয়, সেটার সাথে সহজেই মানিয়ে যায়। আপনি আপনার ডিজাইনারের কাছ থেকে রেস্পন্সিভ ডিজাইনের অনুরোধ জানাতে পারেন। কিন্তু আপনি যদি নিজে করতে চান, তাহলে থিম ফরেস্টের Porto এবং Canvas – এর মত ডিজাইনগুলো দেখতে পারেন।

লোকাল সার্চ

আপনার ওয়েবসাইটে বিশ্বের যেকোনো প্রান্ত থেকে প্রবেশ করা যায়। একারণে, আপনি আপনার এলাকার গ্রাহকদেরকে উপেক্ষা করবেন, তা কিন্তু নয়। এমনকি অ্যামাযনের মত সাইটে, যেখানে নিত্য ব্যবহার্য পণ্য থেকে শুরু করে খাদ্যবস্তু সবকিছু খুব সহজে পাওয়া যায়, সেক্ষেত্রেও লোকাল সার্চ দিন দিন গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে। ক্লিক্স মার্কেটিং এর তথ্য অনুসারে, ৭২ শতাংশ কাস্টমার, যারা স্থানীয়ভাবে কিছু খুঁজেছে, তাঁরা ৫ মাইলের মধ্যে কোন দোকান পরিদর্শন করে থাকেন।

আপনার নতুন ডিজাইনটি ব্যবহার করার আগে নিশ্চিত হউন, আপনার ব্যবসায়িক ঠিকানা লিপিবদ্ধ করা হয়েছে কিনা, এবং আপনার শহর/এলাকার নামটি কীওয়ার্ড হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে কিনা, এবং স্থানীয়ভাবে পরিচিত লোকাল সাইট বা ডাইরেক্টরিতে আপনার সাইটটি অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে কিনা।

ভয়েস সার্চ

গুগলের তথ্য অনুসারে, ভয়েস সার্চের মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে প্রায় ২০ শতাংশ সার্চ করা হয়ে থাকে। যদিও ভয়েস সার্চের মাধ্যমে খুব কমই খোঁজা হয়ে থাকে, কিন্তু আপনাকে এখন থেকেই এটার জন্য পরিকল্পনা করতে হবে।

আপনার এসইও কীওয়ার্ড কৌশল হিসেবে স্বাভাবিক বাক্যাংশ বা প্রশ্ন ব্যবহার করে শুরু করতে পারেন। উদাহরণস্বরূপ, আপনি যদি ডালাসের একজন কুকুর প্রশিক্ষক হয়ে থাকেন, তাহলে এই ধরনের বাক্য ব্যবহার করতে পারেন, “ডালাসের কুকুর প্রশিক্ষকদের কোথায় পাব?” অথবা “ডালাসের একজন কুকুর প্রশিক্ষক খুঁজে বের করো।” যে বাক্যটি আপনি ব্যবহার করবেন তা খুঁজে বের করার জন্য, নিজেকে নিজে প্রশ্ন করুনঃ আপনার ব্যবসায়িক পণ্যটি খুঁজতে একজন মানুষ সাধারণত কি জিজ্ঞাসা করতে পারে? যখন তাঁরা আপনার মত কোন একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খুঁজে, তখন কি ধরণের প্রশ্ন করতে পারে?

১০। আপনার নতুন সাইটটি আপনার ব্র্যান্ডের সাথে মানানসই কিনা তা নিশ্চিত করুন

সবশেষে, আপনার নতুন ডিজাইনটি আপনার ব্র্যান্ডের সাথে দুটি বিষয়ে মানানসই হতে হবে: দেখা এবং অনুভব করা।

“চেহারা” বা কেমন দেখাচ্ছে, তা হচ্ছে ডিজাইনটির চাক্ষুষ বৈশিষ্ট্য। আপনার ওয়েবসাইটের রঙ কি আপনার লোগো ও অন্যান্য বিপণন উপাদানের মত একই রঙের? আপনার নতুন নকশায় কি আপনার পণ্য, অফিস, বা কর্মীদের বর্ণনা বা আপনার অন্যান্য উপকরনের মত একই ছবি ব্যবহার করা হয়েছে?

অন্যদিকে, "অনুভূতি," হচ্ছে ওয়েবসাইট ব্যবহার করে ব্যবহারকারী কি ধরণের অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হচ্ছে। এতে বেশ কিছু বিষয় অন্তর্ভুক্ত আছে, যেমন, সহজ ব্যবহারযোগ্যতা, কার্যকারিতা এবং  ওয়েবসাইট ব্যবহারকারীর সামগ্রিক অনুভুতি। আপনার ব্যবসাটি যদি শহরের একটি ছোট দোকানের মত হয়ে থাকে, যাতে হস্তনির্মিত পণ্য সমূহ বিক্রয় করা হয়, তাহলে আপনি নিশ্চয়ই এটাকে বড় কোনও চেইনশপের মত করে প্রচার করতে চান না।

যেমন, ওয়ালমার্ট এর সাইট ডিজাইনটি এমন যা তাদের বিভিন্ন  পণ্য পর্যায়ক্রমে তুলে ধরছে, এবং প্রতিটি পণ্যের উপর শত শত গ্রাহক পর্যালোচনা আছে। একইসাথে তাঁরা ডিসকাউন্ট এবং কম দামের উপর জোর দেয়।

Wallmart highlights its large volume of products
ওয়ালমার্ট তাঁদের পণ্যগুলো খুব সুন্দরভাবে তুলে ধরেছে।

অন্যদিকে, হ্যারির মত একটি ছোট, বিশেষায়িত অনলাইন স্টোরের অনুভুতি ভিন্ন রকমের। পণ্যের ছবি বড়, কারণ তারা তাদের মাত্র কয়েকটি পণ্যের বিবরণ তুলে ধরেছে। এক্ষেত্রে শুধুমাত্র একটি সাদা ব্যাকগ্রাউন্ডের বিপরীতে তাদের পণ্যগুলো কিছুটা শৈল্পিকভাবেই তুলে ধরা হয়েছে।

Harrys highlights product quality
হ্যারিতে পণ্যের গুণগত মান তুলে ধরা হয়েছে।

এই পদ্ধতি গুলোর কোনটাই সঠিক অথবা ভুল নয়। এই সবগুলোই হচ্ছে চাক্ষুষ ও অভিজ্ঞতালব্ধ পছন্দ যা আপনার ডিজাইনকে সঠিকভাবে তুলে ধরবে।

আপনার ওয়েবসাইট পুনর্নির্মাণ থেকে সেরাটি বের করে আনুন।

উপরের সব কয়টি ওয়েবসাইট পুনর্নির্মাণ টিপস আপনাকে অনুসরন করতে হবে না, কিন্তু এই লিস্ট থেকে যত বেশী অনুসরণ করবেন, তত ভালো ফলাফল পাবেন। যখন আপনি নিশ্চিত হবেন যে, আপনার ওয়েবসাইটটি মোবাইলে খুব সুন্দরভাবে কাজ করছে এবং পরবর্তীতে কনটেন্ট বাড়ানোর সুযোগও আছে, তখন এটা ২০১৭ সাল এবং তৎপরবর্তী সময়ের জন্যও যথেষ্ট মনে করতে পারেন।

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Looking for something to help kick start your next project?
Envato Market has a range of items for sale to help get you started.