Unlimited Powerpoint templates, graphics, videos & courses! Unlimited asset downloads! From $16.50/m
Advertisement
  1. Business
  2. Careers
Business

কিভাবে ২টা জব মেইনটেইন করে বেশি আয় করতে পারবেন

by
Difficulty:BeginnerLength:LongLanguages:

Bengali (বাংলা) translation by Arnab Wahid (you can also view the original English article)

দ্বিতীয় জব থাকা অনেকের জন্যই জরুরী, স্পেশালি তরুণদের জন্য, যারা ফুলটাইম জব করেনা, বা বেতন কম পায়।

সেকেন্ড জবের এক্সট্রা ইনকাম সঞ্চয়ের কাজে আসে। লোন শোধ করতে কাজে আসে। আর হাতে কিছু এক্সট্রাও থাকে। আর এতে প্রাইমারি ইনকাম সোর্স লসের ভয়ও কম থাকে। দুই জবের একটা গেলে পুরো ইনকাম বন্ধ হয়ে যাবে না।

দুইটা জব করা ব্যক্তিগত সিদ্ধান্তের উপর নির্ভর করে। যেমন ফুল টাইম ওয়েব ডেভেলাপার, সাইডে কন্ট্রাইক্ট নিয়ে কাজ করে। আবার অনেকের ৯ টা ৫ টা জব ভাল্লাগেনাম তারা ছোট ছোট একাধিক জব করে।

তবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই, ফুইলটাইম জবের অভাব ও কম বেতনই দুইটা কাজ করার পিছনে মূল কারণ।

কারণ, বাড়ি ভাড়া দেয়া না গেলে, খরচ আর বাঁচানো না গেলে, আরেকটা কাজ শুরু করে কামাই বাড়ানো ছাড়া আর কোন উপায় থাকে না। আর হিসাবে অনেক কাচা হলেও, অপচয় বেশি করলেও, অন্তত আপনি আরেকটি জব করতে পারেন

Can you balance working two jobs
আপনি কি দুইটা জব মেইনটেইন ও ব্যালেন্স করতে পারবেন? (graphic source)

এই টিউটোরিয়ালে আমরা দুইটা জব একসাথে করার সুবিধা ও অসুবিধা আলোচনা করব।

৩। দ্বিতীয় জবের অবৈতনিক সুবিধা

২য় জব শুধু টাকায় না আরও কিছু জিনিষ দিয়ে থাকেঃ

১। নেটওয়ার্কিং ও নতুন জব অপর্চুনিটি

আপনার নেটওয়ার্ক জব বড় হবে, আপনি তত বেশি সুযোগের খোজ পাবেন।

২। বর্তমান জব না ছেড়ে নতুন জব ট্রাই করে দেখা

আজকাল চাকরির বাজার মন্দা। এই উপায়ে চাকরি হারানোর ঝুকি কম থাকে।

বর্তমান জবে থেকে নতুন জবে পার্ট টাইম কাজ করে দেখা যেতে পারে যে ওইটা সুইটেবল কিনা।

ভালো লাগলে বুঝতে পারবেন যে সেই জবে আপনি পরবর্তীতে ফুলটাইম কাজ করতে আগ্রহী কিনা।

৩। দুটা জব ব্যালেন্স করে স্কিল ইমপ্রুভ হয়।

পছন্দের চাকরি ফুলটাইম না পেলে পার্ট টাইম জব এমন নিন যেখান থেকে কিছু শিখে নিতে পারবেন।

ভিডিও গেম এনিমেটর হতে চান। ভিডিও এডিটরের পার্ট টাইম জব নিন। ডিজাইনার হতে চাইলে গ্রাফিক্স ডিজাইনের জব।

এখানে নতুন স্কিল শিখে নিজেকে পছন্দের ক্যারিয়ারের জন্য প্রস্তুত করে নিতে পারবেন।

২টা জব করার বিপদ

২টা জব একসাথে করার কিছু বিপদও রয়েছে।

সপ্তাহে ১০০ ঘন্টা কাজ করতে হবে ওয়ার্ক লাইফ ব্যালেন্স কঠিন হয়ে উঠবে। টাইম ম্যানেজমেন্ট ঠিক মত করলে এটা এটা এড়ানো সম্ভব।

২ জব করার ব্যবসায়িক সমস্যা

আপনি সেকেন্ড জব করতে চান।

হুটহাট করে অনেকগুলো পার্ট টাইম জবে এপ্লাই করে ফেলা উচিৎ না।

বর্তমান অফিস যদি জেনে যায় আপনি দুইটা জব করছেন?

এসব জটিলতা এড়াতে, জেনে নিন আপনার বর্তমান অফিস সাইড জব এলাও করে কিনা। এইচআর ডিপার্টমেন্টে খবর নিন।

যদি মনে হয় আপনার অফিস এই ব্যাপারে ঝামেলা করবে, তবে বিস্তারিত খবর নেয়া শুরু করুন।

যদি আপনার অফিস এমপ্লয়িদের সাইড জব করার অনুমতি দেয়, তবে ভালো!

কিন্তু কি টাইপের জব, সেটা সম্পর্কে শিওর হয়ে নিন। কোন রেস্ট্রিকশন আছে কিনা জেনে নিনঃ

রেস্ট্রিকশনের উদাহরণ

  • কম্পিটিটরের সাথে কাজ করতে পারবেন না
  • বর্তমান জবের কোন তথ্য নতুন জবের যায়গায় ফাঁস করতে পারবেন না।
  • ট্রাস্ট ল
  • বর্তমান জবের থেকে ক্লায়েন্ট ডাইভার্ট করে নতুন জবে নিয়ে যেতে পারবেন না।
  • কর্মক্ষেত্র সম্পর্কে সরকারি আইন
স্যাম নাটেল, RH Nuttall এর অফিস ম্যানেজার বলেন যে তাদের কোন এমপ্লয়ির সাইড জব নিয়ে কোন সমস্যা নেই ,যদি তারা সব নিয়ম মেনে এইচআর কে জানিয়ে সেটা শুরু করে। এতে তাদের কাজের কোয়ালিটি খারাপ না হলেই হল।

২য় জব করায় আপনার মতামত

১। ফ্রিল্যান্সিং

আপনার প্রফেশনাল স্কিল কাজে লাগিয়ে কিছু ফ্রিল্যান্সিং জব করতে পারেন।

এতে মাল্টিপল ক্লায়েন্টের সাথে কাজ করার অভিজ্ঞতা হবে।

অনেক কোম্পানি বিশেষ কাজের জন্য অনেক রকম ফ্রিল্যান্সার কাজে রাখে।

সেই কাজ করতে পারেন। করতে একটা ইন্টারনেট কানেকশনের বেশি কিছু লাগে না। কিভাবে ফ্রিল্যান্সিং শুরু করবেনঃ

২। সাইড বিজনেস শুরু করুন

অনেক সময় ২য় জব না করে অনেকে সাইড বিজনেস শুরু করেন।

এতে আপনার হাতে বেশি কন্ট্রোল থাকবে। নিজের শিডিউল নিজে ঠিক করতে পারবেন। এতে টাইম ম্যানেজমেন্ট সহজ হয়।

কিভাবে বিজনেস শুরু করবেন তা এই টিউটোরিয়াল সিরিজ থেকে শিখতে পারেন।

৩। সার্ভিস ইন্ডাস্ট্রি জব

সার্ভিস বেসড জব যেমন কেটারিং, বারটেন্ডিং ইত্যাদি।

স্বভাবতই, সার্ভিস জবে খাটুনি বেশি। তবে এতে ভালো আয় করা সম্ভব।

৪। সিজনাল জব

এগুলো কন্ট্রাক্ট জব। সাধারণত এমন কাজ স্বল্পমেয়াদী হয়।

সিজনাল জবের উদাহরণ

  • ছুটির সময় রিটেইল জব
  • গ্রীষ্মকালে রিসর্টে জব
  • ট্যাক্স সিজন জব, অ্যাকাউন্টেন্ট ও বুককিপারের জব
  • ক্যাম্পিং ও হাইকিং ম্যানেজারের জব
  • শীতে স্কি টিচারের জন্য
  • টুর গাইডের জব
  • সামার ফেস্টিভল জব

৫। সেবাপ্রদান

যেমন বাচ্চা, বৃদ্ধদের সহায়তা করে। কিন্তু এগুলা অনেক শ্রমসাধ্য কাজ। তাই এমন কাজ পারবেন কিনা আগে খতিয়ে দেখে নিবেন।

কেমন কাজ চান, বুঝতে পারছেন না? তাহলে আমাদের সহায়তা নিনঃ

কিভাবে একাধিক চাকুরি ম্যানেজ করতে হয়

৫টায় বেশির ভাগ মানুষ হয় বাসার দিকে রওনা হয়, নইলে রাস্তার জ্যামে বসে থাকে। 

দুটা জব করলে আপনি এটার হাত থেকে বেচে যাবেন।

তাই দুই জবের টাইম কখন তা শিডিউল করে নিন।

রেবেকা লি বলেন, "আমি সকালে পৌনে ৪টায় ঘু থেকে উঠি। সকাল ৫টা থেকে হাসপাতালে নার্সিং এর জব শুরু করি। সাড়ে ৫টায় বাড়ি ফিরে মেডিকেল আর্টিকেল লেখার কাজ শুরু করি।"

একই দিনে দুটা জবের প্রেশার আপনি নিতে না পারলে, উইকেন্ডে পার্টটাইম জব নিন।

যেমন জিমি সপ্তাহে আইটির কাজ করে, আর ছুটির দিনে ফটোগ্রাফি করে। Jimmy Chan

তবে জিমির সমস্যা হচ্ছে যে সপ্তাহের ৭দিনই কাজ করে, কোন ছুটি পায়না।

অনেকে বাড়ি ফিরে রাতে কয়েক ঘন্টা কাজ করে।

সময় ছাড়াও অনেক কিছু হিসাব করতে হয়, যারা দুটা জব করতে চায় তাদের।

১। এক যায়গা থেকে আরেক জায়গার ট্রাভেল টাইম

দুটা জবের টাইমই যদি ফিক্সড হয়, তবে এটা আগেই হিসেব করে নিন।

২। ভিন্ন ড্রেস কোড

একেক কর্মক্ষেত্রে একেক রকম ড্রেস কোড থাকলে, এক জবের পরে আরেকটায় যাওয়ার আগে আপনার কাপড় বদলের জন্য ১০ মিনিটের মত সময় লাগবে।

৩। প্রতি জবের স্ট্রেস লেভেল ও ফিজিক্যাল এনার্জি

যে জবে আয় বেশি, সে জবে স্ট্রেসও কিছু বেশি। পরের জবের জন্য কি প্রথম জবের পরে এনার্জি থাকে?

যেমন সারাদিন শিক্ষকতার কাজ করে কি দিন শেষে কয়েক ঘন্টা কাস্টমার সার্ভিসের কাজ করতে পারবেন? আমি কলেজের পরে এমন পরেছি। জেতা করতে আমার অনেক রকম সমস্যা হয়েছিল/

এমন ধকলের জব দুটা না করাই ভালো। এরচেয়ে দুটা ভিন্ন রকমের জব ব্যালেন্স করে নেয়া ভালো। 

কাজে প্রোডাক্টিভিটি বাড়াতে, আমাদের প্রোডাক্টিভিটি টিউটোরিয়ালগুলো দেখে নিন।

দুটি চাকরি করার প্রতিবন্ধকতা ও তার সমাধান

১। কাজ ও ব্যক্তিগত কাজের ব্যালেন্স

এক্ষেত্রে বেষ্ট প্রতিকার হচ্ছে টাইম ম্যানেজমেন্ট

তবে সব লিখে রেখে মনে রাখা যায়না। তাই হঠাত কোন সমস্যা হলে সেটা ম্যানেজ করতে আপনার বসের সাহায্য আপনার দরকার হবে।

আর পার্সোনাল কাজের সময়ও আপনাকে ম্যানেজ করতে হবে।

২। ছুটি না পাওয়া

দুটা জব যারা করে, তাদের ছুটি পেতে সমস্যা হয়।

যদিও সম্ভব, কিন্ত অনেক কষ্টসাধ্য। দুই যায়গায় একসাথে একই দিনে ছুটি না পাওয়া যাওয়ার সম্ভাবনা প্রবল।

অফিসে এই ব্যাপারে কথা বলে দেখুন।

৩। খাওয়ার সময় না পাওয়া

খাওয়ার কথা ভুলে যাওয়া সবচেয়ে সহজ। এটা ঠিক মত মেইনটেইন না করলে গ্যাস্ট্রিক, আলসার বাঁধিয়ে ফেলা অনেক সহজ।

দুই জবের জন্যই খাবার প্যাক করে নিন।

অথবা স্লো কুকার দিয়ে দুই তিন দিনের রান্না একসাথে করে নিন।

তাহলে রোজ রোজ খাবার রাধতে হবে না। আমি একসাথে বেশি করে রান্না করে রেখে দেই, পরে যেন কয়েকদিন অফিসে নিয়ে যাওয়া যায়, এই পরিমানে।

যেদিন রাঁধার সময় পাই না, ওইদিন প্যাক করে নিয়ে যাই।

আর উইকেন্ডে অফিস ডে এর জন্য রেঁধে ফ্রিজে রেখে দেই।

৪। অনিদ্রা

কাজের উপর ঘুম নির্ভর করে। 

দিনে ৮ গহ্নটা করে ঘুমানোর চেষ্টা করুন। অনিয়মিত রুটিনে ঘুম নষ্ট হতে পারে। গুহ্মে সহায়তার জন্য এই লিংক দেখুন।

পরবর্তি ধাপ (৩টি বা তারও বেশি জব একসাথে করা)

তিনটা জব কি একসাথে করা পসিবল?

লিন অলডেন, একই সাথে ইঞ্জিনিয়ারিং, ওয়েব ডেভেলাপিং ও ফ্রিল্যান্স রাইটিং এর কাজ করেন। তাকে দেখে বোঝা যায়, যে এটা করা সম্ভব।

" আমি ৮ বছর ধরে ইলেক্ট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং এর কাজ করছি, ফাঁকেফাঁকে লেখালেখির কাজ ও একটা সাইট বানাচ্ছি। আমার জবের টাইম ফিক্সড হলেও, অন্য দুটা কাজ আমি নিজের সুবিধা মত সময়ে করতে পারি।"

৩টা বা তার বেশি জব করতে নিজের ক্রাইটিরিয়া পূরণ করতে হবেঃ

  • অন্তত দুটা জব পার্ট টাইম। কোনটা করতে দিনে ৪ ঘন্টার বেশি লাগে না।
  • ফ্রিল্যান্স জবও ফ্লেক্সিবল।
  • জবগুলো একে অপরের সম্পুরক। যেমন একটার স্কিল আরেকটায় কাজে লাগানো যায়।
  • ২টা জব ফ্লেক্সিবল শিডিউলের। অন্যটা যেমন খুশি।

জব ব্যালেন্স করা বেশ কঠিন। তাই টাইম ফ্লেক্সিবল হতে হবে। এসব ব্যাপার মেপে নিয়ে যদি মনে হয়, পারবেন, তবে আপনি একাধিক জব নিতে পারেন।

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Looking for something to help kick start your next project?
Envato Market has a range of items for sale to help get you started.